সিলেট চেম্বার নির্বাচন: লড়াইয়ে নামতে চান ৫৪ প্রার্থী

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ | ১১:০৫ অপরাহ্ণ | 181

সিলেট চেম্বার নির্বাচন: লড়াইয়ে নামতে চান ৫৪ প্রার্থী

সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৫৪টি। আজ বুধবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা নেওয়া হয়।

চেম্বারের প্রশাসক আসাদ উদ্দিন আহমদ জানান,  নির্ধারিত সময়ে সিলেট চেম্বারের ২২টি পরিচালক পদের জন্য অর্ডিনারি (একক) ৩৪টি, এসোসিয়েট (একক) ১১টি, এসোসিয়েট (সম্মিলিত) ১টি, গ্রুপ (একক) ৭টি ও টাউন এসোসিয়েশন শ্রেণীতে ১টিসহ মোট ৫৪টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে।



তিনি জানান, গতকাল মঙ্গলবার অর্ডিনারি (একক) ৪২টি, এসোসিয়েট (একক) ২০টি, এসোসিয়েট (সম্মিলিত) ১টি, গ্রুপ (একক) ১৫টি, গ্রুপ (সম্মিলিত) ২টি ও টাউন এসোসিয়েশন শ্রেণীর ৩টিসহ মোট ৭৮টি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন সিলেট চেম্বারের নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান এডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান, সদস্য এডভোকেট সৈয়দ শামীম আহমদ ও এডভোকেট মো. জুনেল আহমদ।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র জমাদানকারীরা হলেন- অর্ডিনারি (একক) শ্রেণী থেকে এহতেশামুল হক চৌধুরী, মো. সাহিদুর রহমান, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, আমিরুজ্জামান চৌধুরী, নুরুল ইসলাম, মুশফিক জায়গীরদার, মো. আব্দুর রহমান (জামিল), খন্দকার ইসরার আহমদ রকি, মো. শফিকুল ইসলাম, শান্ত দেব, আব্দুস সামাদ, খলিলুর রহমান চৌধুরী, ফখর উস সালেহীন নাহিয়ান, আলিমুল এহসান চৌধুরী, মোহাম্মদ আলী আকিক, শমসের আহমদ জামিল, মো. আবিদুর রহমান, খন্দকার সিপার আহমদ, সমির লাল দেব, ফজলে রাব্বী চৌধুরী, মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, আবু তাহের মো. শোয়েব, মো. মামুন কিবরিয়া সুমন, এনামুল কুদ্দুছ চৌধুরী, মুকির হোসেন চৌধুরী, হুমায়ুন আহমদ, মো. ফারুক আহমদ, মো. নজরুল ইসলাম, জুবায়ের রকিব চৌধুরী, আক্তার হোসেন খান, আব্দুল হাদি পাবেল, শহিদ আহমদ চৌধুরী, মো. আব্দুস সালাম, মো. সায়েম আহমদ।

এসোসিয়েট (একক) শ্রেণী থেকে মাসুদ আহমদ চৌধুরী, মো. এমদাদ হোসেন, পিন্টু চক্রবর্তী, আব্দুর রহমান, চন্দন সাহা, মো. আতিক হোসেন, আশরাফ আহমদ, ইলিয়াছ উদ্দিন লিপু, কাজী মো. মোস্তাফিজুর রহমান, মো. আবুল কালাম, মনোরঞ্জন চক্রবর্তী সবুজ। এসোসিয়েট (সম্মিলিত) থেকে মাসুদ আহমদ চৌধুরী গং, গ্রুপ (একক) শ্রেণী থেকে মো. সিরাজুল ইসলাম, মো. মাহবুবুল হাফিজ চৌধুরী, মো. নুরুল ইসলাম, বশির আহমদ, তাহমিন আহমদ, মো. আমিনুজ্জামান জোয়াহির, ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী এবং টাউন এসোসিয়েশন শ্রেণী থেকে শমসের জামাল।

প্রসঙ্গত, সিলেটের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির নির্বাচনী তফশিল ঘোষণা করা হয় গত ২ জুলাই। তফশিল অনুযায়ী গত ১৯ আগস্ট মনোনয়নপত্র সংগ্রহের শেষ দিন ও ২১ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণের দিন ধার্য্য করা হয়। গত ৮ আগস্ট সংবাদ সম্মেলন করে চূড়ান্ত ভোটার তালিকাও প্রকাশ করা হয়। কিন্তু এর আগেই চেম্বারে প্রশাসক নিয়োগ ও নির্বাচন আয়োজন নিয়ে উচ্চ আদালতে রিট করেন কামিল আহমদ নামের চেম্বারের এক সদস্য। তার করা রিটের প্রেক্ষিতে আদালত দুই মাসের জন্য নির্বাচন স্থগিত করে চেম্বারে প্রশাসক নিয়োগ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না মর্মে জানতে চান। আদালতের ওই নির্দেশনা চেম্বার কার্যালয়ে এসে পৌঁছায় ৮ আগস্ট রাতে। ফলে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশের পর বন্ধ হয়ে যায় নির্বাচনী কার্যক্রম।

চেম্বারের সচিব গোলাম আকতার ফারুক জানান, গত সোমবার আদালতের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে চেম্বার জজে আপিল করে সিলেট চেম্বার অব কমার্স। আপিলের শুনানী শেষে নির্বাচনের উপর দেয়া স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে আগামী ২৬ আগস্ট শুনানীর তারিখ ধার্য্য করেন আদালত। স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হওয়ায় আবারও নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড।

সৌজন্যে :: সিলেটভিউ

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com