মেয়র সিপার উদ্দিনের তৎপরতায় বদলে যাচ্ছে ‘কুলাউড়া পৌরসভা’

মঙ্গলবার, ১০ আগস্ট ২০২১ | ১:১৫ অপরাহ্ণ | 394

মেয়র সিপার উদ্দিনের তৎপরতায় বদলে যাচ্ছে ‘কুলাউড়া পৌরসভা’
মেয়র নির্বাচিত হয়ে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করছেন

ইউসুফ আহমদ ইমন, কুলাউড়া:: উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে বদলে যাচ্ছে কুলাউড়া পৌরসভার সার্বিক চিত্র। উন্নয়নের ছোঁয়া লাগতে শুরু করেছে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে। আধুনিক ও উন্নত পৌরসভা গড়ে তোলার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করছেন কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ। ২১ বছরের জঞ্জাল দূর করে সুবিধা বঞ্চিত পৌর নাগরিকদের পরামর্শে কুলাউড়া পৌরসভাকে একটা উন্নত সেবা প্রতিষ্ঠানে রূপ দিতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। পৌরবাসীর প্রত্যাশা পূরণে দিন রাত ছুঁটছেন পাড়ামহল্লায়।

১৬ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন তিনি। গেল ০৬ আগস্ট দায়িত্ব গ্রহণের ৬মাস পূর্ণ হয়েছে। দায়িত্ব গ্রহণের পর পাল্টে যেতে থাকে অবহেলিত জনপদটির চিত্র। শুরু হয় উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ। নাগরিক সুবিধা বাড়ানোর পাশাপাশি, যানজট নিরশন, সড়কে বাতি, জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা করতে একাধিক রাস্তা প্রশস্তকরণ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা বৃদ্ধিসহ নানা উন্নয়নমুখী পদক্ষেপ নেন মেয়র। নিজ উদ্যোগে বন্ধ থাকা শহরের সিসি ক্যামেরার পুণরায় সচল করে দেন। এতে করে কমছে পৌরসভার অপরাধ প্রবণতা ও চুরি-ছিনতাই। বর্তমানে পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ ২৫টি পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা সচল হয়েছে। এতে করে পাল্টে যাচ্ছে শহরের দৃশ্যপট। দীর্ঘদিন অন্ধকারে থাকা পৌরসভাকে আলোকিত করতে নির্বাচিত হয়েই পৌর এলাকার অলিগলিতে ছুঁটে চলছেন। এছাড়াও করোনা ভয় দুহাতে ঠেলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়ে মানবিকতার দৃষ্টান্তÍ স্থাপন করেছেন। পৌর ভবনের সামনে টাঁনিয়েছেন ফোন নাম্বার, এতে করে নিজের অভিযোগ ফোন করে মেয়র কে জানাতে পেরে খুশি পৌর নাগরিকেরা। পৌর এলাকা কে পরিচ্ছন্ন রাখতে স্থায়ী ডাসবিন নির্মাণ ও অস্থায়ী ডাসবিন ক্রয় করেছেন। কিছুদিনের মধ্যে শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে ও ৯টি ওয়ার্ডে বসানো হবে এসব ক্রয়কৃত ডাসবিন। মশার যন্ত্রনা থেকে বাঁচাতে মশা নিধনে রেখেছেন জোরালো ভূমিকা। শুধু তাই নয় বিজিএফ কার্ড বিতরণে রেখেছেন স্বচ্ছতা ও সুষ্ঠ বন্টন।



নির্বাচিত হওয়ার ৬মাসে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড :
যানজটমুক্ত করতে শহরের দ্ইুপ্রান্তে নেয়া হয়েছে সিএনজি স্ট্যান্ড, বন্ধ থাকা সিসি ক্যামেরা করা হয়েছে সচল, সংস্কার হয়েছে সড়ক বাতি, জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা করতে একাধিক রাস্তা প্রশস্তকরণ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা বৃদ্ধি, ব্যবসা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সাপ্তাহিক হাটবার চালু, বন্ধ থাকা বিদ্যুৎ সংস্কার কাজ চালু, পৌরবাসীর সুপেয় পানির জন্য ওয়াটার প্ল্যান্ট প্রকল্প, দেখিয়ারপুর গ্রামে রাস্তা প্রশস্তকরণ করতে মাটি ভরাট, ৩নং ওয়ার্ডের (টিটিডিসি) এলাকার ড্রেন, শহরের উত্তর ও দক্ষিণ বাজারের সড়ক সংস্কার, ৯টি ওয়ার্ডের একাধিক সড়কে লেগেছে উন্নয়ন, স্কুল চৌমুহনীতে পশুর হাটও করেছেন ব্যাপক উন্নয়ন, এছাড়াও উত্তরবাজার ও দক্ষিণ বাজার ব্যবসায়ীদের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে বিশুদ্ধ পানির জন্য গভীর নলকূপ, একাধিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণসহ উন্নয়নমূলক কাজ করা হয়েছে ও হচ্ছে।

কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ বলেন, এ পৌর শহরকে উন্নত করার প্রথম প্রতিশ্রুতি উল্লেখ করে তিনি বলেন, জন্মের পর বিগত দিনে পৌরসভার উন্নতি যতটুকু না হয়েছে আগামী ৫ বছরে তার তুলনামূলক চিত্র সবাই দেখতে পারবে ইনশাআল্লাহ।

সকলের সহযোগিতা চেয়ে পৌর মেয়র আরো বলেন, শুধু সকলের সহযোগিতার মধ্য দিয়েই একটি আধুনিক শহর গড়া সম্ভব হবে। এ দায়িত্ব শুধু আমার একার না, সকল পৌর নাগরিকের। স্বল্প সময়ের এ দায়িত্বে রাতারাতি পরিবর্তন সম্ভব না। আমাকে সময় দিতে হবে। জীবনের শেষদিন পর্যন্ত মানুষের পাশে থেকে তাদের জন্য কাজ করে যাবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com