ভারতে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী বিক্ষোভে নিহত ৩

শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৭:২৬ অপরাহ্ণ | 322

ভারতে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী বিক্ষোভে নিহত ৩

ভারতে চলমান সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে অন্তত তিনজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আটক করা হয়েছে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারীকে।। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যাঙ্গালুরু দু’জন, লক্ষ্ণৌয়ে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন। এই ঘটনার পর ম্যাঙ্গালুরুতে ইন্টারনেট বন্ধ রেখেছে প্রশাসন। জারি করা হয়েছে কারফিউ।

বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ও পাকিস্তান থেকে নিপীড়নের মুখে ভারতে পালিয়ে যাওয়া হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, পার্সি ও খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব নিশ্চিতে সম্প্রতি আইন সংশোধন করেছে ভারত। গত ১২ ডিসেম্বর রাতে প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষরের পরেই আইনে পরিণত হওয়া বিলটি শুরু থেকেই মুসলিমবিরোধী আখ্যা পেয়েছে। বিতর্কিত এই আইন প্রত্যাহারের দাবিতে দেশজুড়ে সরব একাধিক রাজনৈতিক দল। চলছে দফায় দফায় বিক্ষোভ।



এনডিটিভি জানায়, ইতোমধ্যে ম্যাঙ্গালুরুতে কারফিউ জারি করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, বিক্ষোভকারীরা মেঙ্গালুরু নর্থ থানা দখল করতে এলে গুলি চালানো হয়।

বৃহস্পতিবার সবচেয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছিল লক্ষ্ণৌ। পরিস্থিতি প্রশাসনের হাতের বাইরে চলে যায়। থানায় আগুন, পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর এমনকি সংবাদমাধ্যমের ওবি ভ্যানে আগুন লাগানোও বাদ যায়নি। পাল্টা লাঠিচার্জ করে পুলিশ, কাঁদানে গ্যাসের সেলও নিক্ষেপ করা হয়। দুপুরে পুলিশের গুলিতে বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারী আহত হয়।

পরে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়। কিং জর্জ মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রমা সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সদ্বীপ তিওয়ারি সংবাদমাধ্যম পিটিআই’কে জানিয়েছেন, ‘আগ্নায়াস্ত্রের গুলিতে মোহাম্মদ ওয়াকিল (২৫) নিহত হয়েছেন। এখানে আরও দুইজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের একজন আগ্নায়াস্ত্রের গুলিতে আহত।’

বৃহস্পতিবার পুলিশি নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে উত্তর প্রদেশ, ব্যাঙ্গালুরু, মুম্বাই ও দিল্লিতে নাগরিক সমাজ, রাজনৈতিক দল, শিক্ষার্থী, অ্যাক্টিভিস্ট ও সাধারণ জনগণকে বিক্ষোভ প্রদর্শনের ইন্সটাগ্রাম ও টুইটারে আহ্বান জানাচ্ছেন। তারা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের ডাক দিচ্ছেন। আন্দোলনের মুখে দিল্লির বিভিন্ন স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে রাজধানী দিল্লি, উত্তর প্রদেশ, ব্যাঙ্গালুরুসহ কর্ণাটকের কিছু এলাকায়। তবে পুলিশি নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। সে সময় শীর্ষ রাজনীতিক থেকে শুরু করে প্রখ্যাত ইতিহাসবীদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এমন সময় এই জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com