আপডেট

x


বিগঞ্জে ব্রিজের অভাবে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ৬:৪৬ অপরাহ্ণ | 374

বিগঞ্জে ব্রিজের অভাবে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

চেয়ারম্যান আর মেম্বার এলজিইডি অফিসে বার বার যোগাযোগ করে ক্লান্ত। দেড় বছর পূর্বে স্থানীয় এমপি দিয়েছেন ডিও লেটার। এরপরও হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ইয়ালা গ্রামের খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মাণ হয়নি।

ফলে সেখানকার দুটি স্কুলের কয়েক হাজার ছাত্রছাত্রীকে বাঁশের সাকোতে ঝুঁকি নিয়ে স্কুলে যাতায়াত করতে হচ্ছে। তিন গ্রামে হাজার হাজার মানুষকে পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি।



স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হাওর অধ্যুষিত বানিয়াচং উপজেলার মক্রমপুর ইউনিয়নের একটি ঐতিহ্যবাহী গ্রাম ইয়ালা। গ্রামের পাশেই প্রবাহিত হচ্ছে ইয়ালা খাল। খালের একদিকে ৫০ বছরের পুরাণো ইয়ালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। অপরদিকে ২৫ বছরের পুরনো ইয়ালা উচ্চ বিদ্যালয়। প্রাইমারী স্কুলে অধ্যয়ন করে প্রায় ৮শ শিক্ষার্থী। হাই স্কুলে আছে দেড় হাজার শিক্ষার্থী। এটি মক্রমপুর ইউনিয়নের একমাত্র হাই স্কুল।

স্কুলের পাশে রয়েছে একটি মসজিদ ও বাজার। খালের উপর থাকা বাঁশের সাকো দিয়ে ইয়ালা, সুলতানপুর ও কঢ়ুয়ার আব্দা গ্রামের ১৫ হাজার লোকজন যাতায়াত করে। সাকোর উভয়দিকে রয়েছে এলজিইডির ৬৩৬১১৫০৭০ আইডি নং সড়ক। কিন্তু ব্রিজ না থাকায় ওই রাস্তার সুফল পাচ্ছে না এলাকাবাসী।

ইয়ালা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল ওয়াহিদ জানান, তার স্কুলের শিক্ষার্থীদেরকে বাঁশের সাকো দিয়ে স্কুলে আসতে হয়। এতে করে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। হাওর এলাকার শিশুর সাতার জানলেও অনেকেই পানিতে পড়ে গিয়ে জামা ও বই নষ্ট করে ফেলে। এখানে ব্রিজ নির্মাণ করা হলে শুধু শিক্ষার্থীরাই নয়, সাধারণ মানুষও উপকৃত হবে।

ইয়ালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রামেন্দ্র চন্দ দাশ বলেন, বর্ষকালে খালের উপর বাঁশের সেতু দিয়ে শিশুরা বিপদজনক অবস্থায় চলাচল করে। জরুরি ভিত্তিতে এখানে ব্রিজ না হলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। বারবার এলজিইডি অফিসে যোগাযোগ করেছি। একাধিকবার ইঞ্জিনিয়ারকে নিয়ে এসেছি। আমাদের এমপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান ২০১৮ সালের ২৯ মার্চ একটি ডিও লেটার দিয়েছেন এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীকে। যার নং ৩৫। তিনি ডিও লেটারে বলেছেন সিলেট বিভাগ গুরুত্বপূর্ণ গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ১৫ মিটার দৈর্ঘ্য আর ৫ মিটার প্রস্ত একটি ব্রিজ নির্মাণ করার জন্য। কিন্তু রহস্যজনক কারণে এখানে ব্রিজ হচ্ছে না। গুরুত্ব বিবেচনা এখানে ব্রিজ নির্মাণের পাশাপাশি উভয়দিকের সড়ক পাকা করণ জরুরি।

হবিগঞ্জ এলজিইডির সিনিয়র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল বাছির বলেন, আমি এখানে নতুন এসেছি। তবে আমরা বেশ কিছু ব্রিজের তালিকা তৈরি করেছি সম্ভাব্যতা যাচাই করার জন্য। এই ব্রিজটিও তালিকায় অন্তর্ভুক্তির চেষ্টা করব

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে ছোট একটি ব্রিজের জন্য শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি মেনে নেয়া যায় না। এ ব্যাপারে উন্নয়ন সমন্বয় সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com