প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্বামীকে হত্যা করেন সুরমা

বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৯:১১ অপরাহ্ণ | 134

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্বামীকে হত্যা করেন সুরমা

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ব্যবসায়ী কুদ্দুস (৫১) হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। প্রেমিক ইসমাইলকে (৩১) সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে হত্যা নিশ্চিত করে ডাকাতির নাটক সাজান স্ত্রী সুরমা আক্তার প্রকাশ বিবি আছিয়া (৪০)।

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) বিজয়া সেন বেগমগঞ্জ থানায় সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানান।

এরআগে বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের রফিকপুর গ্রাম থেকে কুদ্দুসের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি ওই গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে।

মরদেহ উদ্ধারের সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্ত্রী সুরমা আক্তারকে আটক করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রেমিক দুবাই প্রবাসী ইসমাইলকে আটক করা হয়। তিনি একই ইউনিয়নের লতিফপুর গ্রামের সামছল হকের ছেলে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয়া সেন জানান, পাঁচ বছর আগে নিজেদের বাড়ির দালান করার সময় টাইলস মিস্ত্রি মো. ইসমাইলের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন সুরমা আক্তার। পরে ইসমাইল দীর্ঘদিন দুবাই থাকার পর গত ৬ সেপ্টেম্বর বাড়িতে না জানিয়ে দেশে এসে সেনবাগের খালার বাসায় ওঠেন। সুরমার প্ররোচনায় তার স্বামী কুদ্দুসকে হত্যার পর আবারও দুবাই চলে যাওয়ার পরিকল্পনা করেন তিনি।

বুধবার রাতে সুরমা আক্তার প্রেমিক ইসমাইলকে বাড়ির ছাদে লুকিয়ে রাখেন। রাতে স্বামী কুদ্দুসকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে ইসমাইলকে ডেকে নেন। পরে কদ্দুসের দুই পায়ে তার বেঁধে বিদ্যুতের সংযোগ লাগিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করেন। পরে প্রেমিককে বাইরে বের করে দিয়ে বাসায় ডাকাতির নাটক সাজান স্ত্রী সুরমা আক্তার।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে সুরমা আক্তারের অসংলগ্ন কথাবার্তা শুনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। একপর্যায়ে প্রেমিককে নিয়ে নিজের স্বামীকে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেন সুরমা। পরে তার দেওয়া তথ্যে অভিযান চালিয়ে পাসপোর্ট ও বিমান টিকিটসহ ইসমাইলকেও আটক করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টা ৫ মিনিটের ফ্লাইটে দুবাই পাড়ি দেওয়ার কথা ছিল তার।

নোয়াখালী আদালতের পরিদর্শক শাহ আলম বলেন, সুরমা আক্তার ও তার প্রেমিক ইসমাইল পরকীয়ার জেরে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে ব্যবসায়ী কুদ্দুসকে হত্যার কথা ১৬৪ ধারায় বিচারকের কাছে স্বীকার করেছেন। তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) নাজমুল হাসান রাজিব, বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলামসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com