আপডেট

x


চার মাস পরও মিলেনি হাওরের বাঁধের চূড়ান্ত বিল

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২ | ১১:১১ অপরাহ্ণ | 41

চার মাস পরও মিলেনি হাওরের বাঁধের চূড়ান্ত বিল

ডেস্ক নিউজ:: হাওরের ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের চুড়ান্ত বিল না পেয়ে অর্থ কষ্টে ভুগছেন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার হাওর পাড়ের কৃষক ও জনপ্রতিনিধিরা। নিয়ম অনুযায়ী ফসল উত্তোলনের পর পর চুড়ান্ত বিল পরিশোধের কথা থাকলেও ভয়াবহ বন্যায় বির্পযস্ত হয়ে ফসল উত্তোলনের চার মাস পরও বিল না পেয়ে অর্থ কষ্টে ভূগছেন তারা।

কৃষক ও পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, বোরো ফসলের ওপর নির্ভরশীল সুনামগঞ্জের হাওর পাড়ের কৃষকদের ফসল রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করে। নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর কাজ শুরু করে ২৮ ফেব্রুয়ারি কাজ শেষ হওয়ার কথা। চলতি বছর এপ্রিলের শুরুতে আগাম বন্যা দেখা দিলে বেশ কয়েকটি বেড়িবাঁধ ঝুঁকিতে পড়ে এসময় বেড়িবাঁধ রক্ষায় জোর তৎপরতা চালান প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির লোকজন। বাঁধ রক্ষায় ধারদেনা করে টাকা খরচ করে কাজ করেন।



হাওরের ফসল রক্ষা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি রনধীর দাস নান্টু বলেন, নলুয়ার হাওরের ফসল রক্ষায় ১৭ লাখ ৭০ হাজার টাকার একটি প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করে তিন কিস্তিতে ৫৫ ভাগ বিল পেয়েছি। অনেক কষ্টে ধারদেনা করে কাজ শেষ করলেও বিল না পাওয়ায় অর্থ কষ্টে ভুগছি। তিনি বলেন, হাওরের ফসল রক্ষায় ঝুঁকিপূর্ণ অন্য একটি প্রকল্প রক্ষায় বিকল্প বেড়িবাঁধ নির্মাণ করি।যার এক টাকা বিল পাইনি।

আহমেদ আলী নামে নলুয়ার হাওরের ফসল রক্ষা আরেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি বলেন, নিয়ম অনুযায়ী চুড়ান্ত বিল পাওয়ার আগে ৭৫ ভাগ বিল পাওয়ার কথা। বিল পেয়েছি ৫৫ ভাগ। এছাড়াও বাঁধ রক্ষায় অতিরিক্ত কাজ করেছি। এখনো কোন টাকা পাইনি। তিনি বলেন দুই দফা বন্যায় প্রায় সব প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির লোকজন আর্থিকভাবে বির্পযস্ত হয়ে অর্থ কষ্টে ভূগছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ২৮ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ করা হয়। এপ্রিল ও মে মাসে ফসল উত্তোলনের সময় অকাল বন্যায় ফসল রক্ষায় জরুরি আরও ৬ টি বিকল্প বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হয়। যার জন্য আরও ২৫ লাখ টাকা প্রাক্কলন করা হয়।

হাওর বাঁচাও আন্দোলন জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম বলেন,হাওরের ফসল রক্ষায় পিআইসি প্রথা (প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি) থাকায় এবার নলুয়ার হাওরের ফসল রক্ষা পেয়েছে। কৃষক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সমন্বয়ে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ হওয়ায় দিনরাত সংস্কার কাজ করে বাঁধ রক্ষা করা হয়। ফসল উঠার পরও বিল না পাওয়া দুঃখজনক।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাঠ কর্মকর্তা হাসান গাজী বলেন, অচিরেই বিল পরিশোধ করা হবে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com