কুলাউড়ায় গরু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০ | ৮:১৮ অপরাহ্ণ | 188

কুলাউড়ায় গরু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার ভাটেরায় দুই ব্যবসায়ীকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাদের ব্যবসার জন্য ক্রয়কৃত গরুসহ মিথ্যা মামলায় আটক করে জেলহাজতে প্রেরণের প্রতিবাদে বিশাল মানববন্ধন করেছে ভাটেরা ইউনিয়নবাসী। রবিবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় ভাটেরা ইউনিয়নবাসীর ব্যানারে আয়োজিত স্থানীয় ভাটেরা স্টেশন বাজারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বণিক সমিতির সভাপতি আকমল হোসেন তালুকদারের সভাপতিত্বে ও শাকিল সিদ্দিকী খালেদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন- ভাটেরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম সিদ্দিকী নানু, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক আহবায়ক ও ভাটেরা স্কুল এন্ড কলেজের সদস্য হাজী আজাদ মিয়া সিদ্দিকী, বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রনি হাসান সালাম, কাতার প্রবাসী হারিছ মিয়া তালুকদার, ভাটেরা স্কুল এন্ড কলেজ গভর্ণিং বডির সদস্য সাহেদুর রহমান তালুকদার, ইউপি (১নং ওয়ার্ডের) সদস্য আব্দুল মজিদ, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল লতিফ, নোয়াগাঁও গ্রামের শাহ আব্দুল লতিফ, ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি জালাল উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম রুকন, যুবদল নেতা মইনুল ইসলাম তালুকদার ময়না, সাবেক ছাত্রনেতা রুয়েল আহমদ, নোমান আহমদ সিদ্দিকী ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি তালুকদার সুমন প্রমুখ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৫ জানুয়ারি দিবাগত রাত দেড়টায় ভাটেরার নোয়াগাঁও গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাতির মিয়া ও জয়নাল মিয়া সিলেট গোয়াইনঘাট থেকে তাদের ব্যবসার জন্য ৫টি গরু ক্রয় করে পিকআপ যোগে নিয়ে ভাটেরায় আসছিলেন। ফেঞ্চুগঞ্জের মোমিনছড়া বাগানে পৌঁছলে ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই লিটন রায় পিকআপসহ গরু আটক করেন। ব্যবসায়ী বাতির মিয়া ও জয়নাল মিয়া গরু ক্রয়ের রশিদ দেখালেও পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পাননি। একপর্যায়ে বিক্রেতার সাথে ফোনে যাচাই করার কথা বলেও কোন কাজে আসেনি। এসময় গরু ক্রয়ের রশিদ ছিঁড়ে ফেলে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাতির মিয়া ও জয়নাল মিয়া ভাটেরার অত্যন্ত সৎ ব্যবসায়ী। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তারা বড় বড় গরু ক্রয় করে ফেঞ্চুগঞ্জ বাজারে নিয়ে বিক্রি করেন। গরু ব্যবসায়ী হিসেবে সবাই তাদের চিনেন। মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ঐদিন (৫ জানুয়ারি দিবাগত রাত) পুলিশকে গরু ক্রয়ের রশিদ দেখানোর পরও পুলিশের দাবীকৃত মাত্র ১০ হাজার টাকা চাঁদা না দেওয়ায় গরুসহ পিকআপ ও দুই ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। স্থানীয়রা জানান, তারা গরু বিক্রেতার সাথে যোগাযোগ করেছেন এবং সেখানকার বাজার ইজারাদার গরু বিক্রির সত্যতা জানিয়ে পুলিশকে বলেন, তাদের (দুই ব্যবসায়ীর) কাছে রশিদ রয়েছে। কিন্তু তাতেও পুলিশ কোন কোন গুরুত্ব দেয়নি।



মানববন্ধনে বক্তারা জানান, পুলিশ হয়রানি করতে সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে দুই গরু ব্যবসায়ীকে মামলায় জড়িয়েছে। এক ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে ৬টি সামাজিক সংগঠনসহ ব্যবসায়ী, বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার প্রায় ৫শত লোক অংশ নিয়ে একাত্মতা পোষণ করেন।
মানববন্ধনে বক্তারা ২৬ জানুয়ারি (মামলার তারিখ) দুই ব্যবসায়ীর নিঃশ^র্ত মুক্তির দাবী জানিয়ে অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী করেন।

ভাটেরা স্টেশন বাজার বণিক সমিতির সভাপতি আকমল হোসেন তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক রনি হাসান সালাম জানান, ভাটেরার সৎ দুই ব্যবসায়ী বাতির মিয়া ও জয়নাল মিয়ার নিঃশ^র্ত মুক্তি দাবী ও ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সিলেটের ডিআইজি বরাবরে আজ (২০ জানুয়ারি) স্মারকলিপি দেওয়া হবে।
জানতে চাইলে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) খালেদ চৌধুরী বলেন, “পুরো বিষয়টি জানিনা, আমি ছুটিতে ছিলাম। যেহেতু মামলা হয়েছে এবং গরুগুলো বিজ্ঞ আদালতের জিম্মায় রয়েছে, আমি চাই সুষ্ঠু তদন্ত হোক। ব্যবসায়ী হিসেবে তাদের কাছে গরু ক্রয়ের প্রয়োজনীয় কাগজ থাকলে তদন্তে অবশ্যই নির্দোষ প্রমাণিত হবে এবং তারা মুক্তি পাবে।”

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com