যানজট মুক্ত শহর: নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করলেন মেয়র সিপার

বৃহস্পতিবার, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১:১৪ অপরাহ্ণ | 211

যানজট মুক্ত শহর: নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করলেন মেয়র সিপার

নিজস্ব প্রতিবেদক:: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া শহরের প্রধান সমস্যা যানজট নিরসনে পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদের উদ্যোগে শহরের দুই পাশে দুটি সিএনজি স্ট্যান্ড স্থাপন করা হয়েছে। ১৯৯৬ সালে কুলাউড়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম যানজট নিরসনের উদ্যোগ নেন পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ। উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের সহযোগিতায় পৌর শহরের উত্তরবাজার ও উছলাপাড়া এলাকায় সিএনজি অটোরিকশার দুটি নির্ধারিত স্ট্যান্ড তৈরি করা সম্ভব হয়।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় পৌর শহরের উত্তরবাজার ও উছলাপাড়া এলাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায় সিএনজি অটোরিকশার নির্ধারিত স্ট্যান্ড হস্তান্তর অনুষ্ঠানে পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান।



বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মাও. ফজলুল হক খান সাহেদ, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনর্চাজ বিনয় ভূষণ রায়, কেন্দ্রীয় জাসদ নেতা গিয়াস উদ্দিন আহমদ, কুলাউড়া ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. সিরাজ, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক এম. আতিকুর রহমান আখই, পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন (২৩৫৯) এর সাধারণ সম্পাদক সোহাগ মিয়া প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন কুলাউড়া পৌরসভার কাউন্সিলরসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

উল্লেখ্য, কুলাউড়ায় নাগরিকদের অন্যতম প্রধান সমস্যা ছিল শহরের যানজট। শহরের প্রধান সড়কের দুই পাশে অবৈধভাবে সিএনজি অটোরিকশা যত্রতত্র রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতো। এতে দেখা দিত তীব্র যানজট। সাধারণ মানুষের চলাচলে অনেক ভোগান্তি পেতে হতো। সেই ভোগান্তির সমস্যা সমাধানের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। ১৯৯৬ সালে কুলাউড়া পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম যানজট নিরসনের উদ্যোগ নেন পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ। এখন থেকে আর শহরের প্রধান সড়কের দুই পাশে যত্রতত্র সিএনজি অটোরিকশাগুলো দাঁড়িয়ে থাকবে না। এতে করে যানজট লাগার সম্ভাবনা অনেকটা কমবে বলে আশা করছেন উপজেলার নাগরিকগণ। প্রধান সড়ক থেকে সিএনজি অটোরিকশাগুলো এখন তাদের স্থায়ী ঠিকানা পেল। উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে প্রায় ৩৯টি সিএনজি অটোরিকশা লাইন ব্যবহার করে গ্রামাঞ্চল থেকে শহরে প্রায় কয়েক হাজার মানুষ প্রতিদিন উপজেলা সদরে যাতায়াত করেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com