আপডেট

x


১২ রিকশাচালকের দায়িত্ব নিলেন ব্যারিস্টার-চিকিৎসক দম্পতি

রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ | ৬:৪৫ অপরাহ্ণ | 155

১২ রিকশাচালকের দায়িত্ব নিলেন ব্যারিস্টার-চিকিৎসক দম্পতি

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশে কার্যত লকডাউন অবস্থা চলছে। উপার্জন না থাকায় বিপদে আছেন খেটে খাওয়া মানুষরা। এমন অবস্থায় তাদের জন্য এগিয়ে এলেন এক ব্যারিস্টার-চিকিৎসক দম্পতি। এ দম্পতি কমলাপুরের একটি গ্যারেজের ১২জন রিকশাচালকের দায়িত্ব নিলেন। আপৎকালীন সময়ে প্রতিদিন তাদের তিন বেলা খাবার দেবেন এ দম্পতি।

অন্যদেরও এমন কাজে উৎসাহিত করতে ব্যারিস্টার স্বামী তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে একটি পোস্ট দেন। তিনি লেখেন, ডা. খাদিজা এবং আমি করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত ঢাকার কমলাপুরে অবস্থিত একটি গ্যারাজের ১২ জন রিকশাচালককে দৈনিক তিন বেলা খাদ্যসামগ্রী সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এর ফলে আমাদের রিকশাচালক ভাইয়েরা এই খারাপ সময়ে তাদের উপার্জিত সামান্য অর্থ গ্রামে পাঠাতে পারবেন প্রিয়জনদের জন্যেন। আসুন আমরা সবাই এই খারাপ সময়ে সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের পাশে দাঁড়াই। আসুন সবাই একসাথে বাঁচি।



তার এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নতুন সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

কাজল বলেন, আমাদের প্রিয় বন্ধু ব্যারিস্টার আব্দুল কাউয়ুম লিটন করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত ঢাকার কমলাপুরে অবস্থিত একটি গ্যারাজের বারোটি রিকশচালককে দৈনিক তিন বেলা খাদ্যসামগ্রী সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার এই মানবিক উদ্যোগে সঙ্গী হয়েছেন তার স্ত্রী ডা. খাদিজা।

কাজল বলেন, এতে তাদের পরিবারের উপর অতিরিক্ত কোনো চাপ পড়বে না। তারা শুধুমাত্র তাদের প্রতিদিনের খরচ কমিয়ে ফেলেছেন। আসুন আমরা সবাই লিটনের মতো এভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াই। সবাই একসাথে বাঁচি।

জানতে চাইলে ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ুম লিটন সাংবাদিকদের বলেন, করোনা মোকাবেলা সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত। এই জন্য আমি ও আমার স্ত্রী ডা.খাদিজ সিদ্দিকা রিকশা চালকদের জন্য সামান্য ব্যবস্থা করেছি। তবে এটার পরিধি আরও বাড়াবো। এছাড়া আমি দুই শতাধিক পিপিই’র বন্দোবস্ত করছি। হাতে পেলে একটি হাসপাতালকে দেব। আমি সমাজের বিত্তবানদের আহ্বান জানাবো সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে এই কাজে এগিয়ে আসতে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com