আপডেট

x


দেশে আক্রান্তদের ৭৮ শতাংশই ভারতীয় ধরন

রবিবার, ০৪ জুলাই ২০২১ | ১১:১৪ অপরাহ্ণ | 125

দেশে আক্রান্তদের ৭৮ শতাংশই ভারতীয় ধরন

দেশে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে ৭৮ শতাংশের দেহে ভারতীয় ধরন (ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট) পাওয়া গেছে। জুন মাসে করা করোনার জিনোম সিকোয়েন্সে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।

রোববার (৪ জুলাই) সন্ধ্যায় আইইডিসিআরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।



প্রতিবেদনে বলা হয়, ডিসেম্বর থেকে দেশে করোনার জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে জুন মাসের জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ে দেখা যায়, করোনায় আক্রান্তদের ৭৮ শতাংশই ভারতীয় ধরনে সংক্রমিত হয়েছেন।

এতে বলা হয়, সারা বিশ্বে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাসটি পরিবর্তিত হয়ে নতুন চেহারা ও বৈশিষ্ট্য ধারণ করছে যা ভ্যারিয়্যান্ট নামে পরিচিত। সংক্রমণের গতি, রােগের জটিলতা (মৃত্যু হার ও হাসপাতালে ভর্তির হার), রােগ পরবর্তী ও টিকা গ্রহণ পরবর্তী রােগ প্রতিরােধ সক্ষমতা বিবেচনায় কিছু কিছু ভ্যারিয়্যান্টকে ভ্যারিয়্যান্ট অব কনসার্ন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যেমন- আলফা, বিটা, গামা ও ডেল্টা ভ্যারিয়্যান্ট।

সার্স-কোভ-২ ভাইরাসটি ২০১৯ সালে প্রথম শনাক্তের পর থেকে এখন পর্যন্ত অনেকগুলাে ভ্যারিয়্যান্ট পাওয়া গেছে। বাংলাদেশে সংক্রমিত মানুষদের মধ্যে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসটির ভ্যারিয়্যান্ট শনাক্তের জন্য দেশে এ রােগটি শনাক্ত হওয়ার শুরু থেকে আইইডিসিআর, আইসিডিডিআর’বি ও আইদেশী যৌথভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে গত বছরের ডিসেম্বর থেকে এ বছরের জুন পর্যন্ত মােট ৬৪৬টি সংগৃহীত করোনা নমুনার জিনােম সিকোয়েন্সিং সম্পন্ন করা হয়েছে। এসব নমুনায় করোনার আলফা ভ্যারিয়্যান্ট (ইউকেতে প্রথম শনাক্ত), বিটা ভ্যারিয়্যান্ট (সাউথ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত), ডেল্টা ভ্যারিয়্যান্ট (ভারতে প্রথম শনাক্ত), ইটা ভ্যারিয়্যান্ট (নাইজেরিয়াতে প্রথম শনাক্ত), বি- ১.১.৬১৮ ভ্যারিয়্যান্ট (আনআইডেন্টিফাইড) শনাক্ত হয়েছে।

২০২০ সালের ডিসেম্বর থেকে এ বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সিকোয়েন্সিং করা সব নমুনায় আলফা ভ্যরিয়্যান্ট পাওয়া যায়। মার্চ মাসের সিকোয়েন্সিং করা নমুনার ৮২ শতাংশ নমুনায় বিটা ভ্যারিয়্যান্ট ও ১৭ শতাংশ নমুনায় আলফা ভ্যারিয়্যান্ট পাওয়া গেছে। এপ্রিল মাসেও দেশে করোনা সংক্রমিতদের মধ্যে বিটা ভ্যারিয়্যান্টের প্রাধান্য ছিল। এপ্রিলে ভারতীয় (ডেল্টা) ভ্যারিয়্যান্ট শনাক্ত হওয়ার পর থেকে এ ধরনের শনাক্তের হার বৃদ্ধি পেতে থাকে। মে মাসে ভারতীয় ধরন ৪৫ শতাংশ ও জুন মাসে ৭৮ শতাংশ নমুনায় শনাক্ত হয়। দেশে বর্তমানে করোনা সংক্রমণে ভারতীয় ধরনের সুস্পষ্ট প্রাধান্য দেখা যাচ্ছে।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com