দুই চলচ্চিত্রে সিলেটের জ্যোতি

বুধবার, ০২ জুন ২০২১ | ৪:১০ অপরাহ্ণ | 350

দুই চলচ্চিত্রে সিলেটের জ্যোতি

মঞ্চে আলো ছড়ানো জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যোতি সিনহা এবার স্বল্পদৈর্ঘ্য ও মুক্তদৈর্ঘ্যের দু’টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির নাম ‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’ আর মুক্তদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির নাম ‘আলো আমার আলো’। চমৎকার গল্প ও নির্মাণশৈলীতে নির্মিত চলচ্চিত্র দু’টি দর্শকদের খুব ভালো লাগবে বলে আশাবাদী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘তাহার’।

জ্যোতি সিনহা বলেন, খুবই মানবিক গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমা দু’টি গভীরভাবে দর্শকদের হৃদয় স্পর্শ করবে। আর গল্পকে শতভাগ ফুটিয়ে তুলতে অভিনয়ে আমি আপ্রাণ চেষ্টা করেছি। আশা করি সিনেমা দু’টি দর্শকদের ভালো লাগবে।



আলো নামের একজন পঙ্গু মেয়ের জীবনের সত্য ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘আলো আমার আলো’ মুক্তদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটিতে জ্যোতি রূপা চরিত্রে অভিনয় করেছেন। রূপা যখন শহরের জীবনে সম্পর্ক, চাকরি ইত্যাদি নানা সমস্যায় জর্জরিত, তখন সে এসব নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয়। এমন সময় আলো নামের একটি  মেয়ের বার্তা আসে মেসেঞ্জারে। আলো বলে, তার দুঃখের কাছে পৃথিবীর আর সব দুঃখ তুচ্ছ। রূপা আর আলোর মধ্যে একটা ভার্চুয়াল গভীর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আলোর করুণ গল্প শুনে রূপা ভুলে যায় নিজের জীবনের যন্ত্রণা। একদিন রূপা চলে যায় আলোর কাছে। দু’জনে মিলে মুক্তির স্বাদ খুঁজে পায়। কিন্তু এর মধ্যে রূপার সংকটগুলো বাধা হয়ে দাঁড়ায়। শেষ পর্যন্ত রূপা কি পারবে আলোর জীবনে প্রকৃত সহযাত্রী হয়ে থাকতে? মানবিকতার এমন টানাপোড়েন নিয়ে সিনেমাটির গল্প এগিয়েছে।

সিনেমায় আলোর ভূমিকায় অভিনয় করছেন অপর্ণা বন্দনা। মূলত বন্দনার জীবনের সত্যি ঘটনা নিয়েই সিনেমাটি নির্মিত। এতে আরও অভিনয় করছেন বিধান সিংহ, ইপা বড়ুয়া, বিলকিস বেগম প্রমুখ।

‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’ আন্মের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে একটি মেয়ে ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর তার জীবনে কী বিপর্যয় নেমে আসে তার প্রতিচ্ছবি। সিনেমার মূল গল্পে দীপা নামের মেয়েটি ধর্ষিত হওয়ার পরবর্তী একটি দিন ভোর থেকে রাত অবধি তার ভারসাম্যহীন ক্রিয়াকলাপ একেবারেই ভিন্নভাবে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। নিজেকে ভালো ও স্বাভাবিক রাখার অস্বাভাবিক চেষ্টার মধ্য দিয়ে একসময় দীপা প্রস্তুতি নিতে থাকে চরম প্রতিশোধের। কিন্তু দীপা কি তা পারবে? এ সিনেমাটিতে দীপার চরিত্রে অভিনয় করেছেন জ্যোতি সিনহা।

সিনেমা দু’টির গল্প, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন শুভাশিস সিনহা। সিনেমাটোগ্রাফি করেছেন আবিদ মল্লিক। এছাড়া কার্যনির্বাহী প্রযোজক উত্তম কুমার সিংহ, কণ্ঠ দিয়েছেন শর্মিলা সিনহা, শিল্প নির্দেশনায় সজল কান্তি সিংহ, পোশাক ও রূপসজ্জায় স্বর্ণালী সিনহা, সহযোগী শ্যামলী ও আশা, ব্যবস্থাপনায় সুশান্ত, সৌরভ ও অঞ্জন।

‘তাহারা’ নামের এক নতুন অডিও ভিজুয়াল প্ল্যাটফর্ম থেকে সিনেমা দু’টি নির্মিত হয়েছে। সিনেমা দু’টি প্রকাশের জন্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে আলাপ চলছে বলে জানিয়েছেন জ্যোতি সিনহা।

উল্লেখ্য, ছোটবেলা থেকে জ্যোতি থিয়েটারের একজন সক্রিয় শিল্পী। ‘কহে বীরাঙ্গনা’, ‘হ্যাপি ডেজ’, ‘রুধিররঙ্গিণী, ‘লেইমা’, ‘মন পাহিয়াপ প্রভৃতি তার আলোচিত মঞ্চনাটক।

সৌজন্যে: সিলেট মিরর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com