চিফ হিট অফিসার বুশরা নিয়োগ পেলেন যেভাবে

সোমবার, ০৮ মে ২০২৩ | ২:০৯ অপরাহ্ণ | 108

চিফ হিট অফিসার বুশরা নিয়োগ পেলেন যেভাবে

এশিয়ার প্রথম শহর হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটিতে চিফ হিট অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। চলতি বছর তীব্র দাবদাহের মধ্যে এই পদে নিয়োগ পেলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলামের মেয়ে বুশরা আফরিন।

চিফ হিট অফিসার পদে বুশরার নিয়োগের প্রক্রিয়া কী ছিল, নিয়োগে ডিএনসিসির ভূমিকা কতটুকু, সিটি করপোরেশন থেকে কী কী সুবিধা তিনি পাবেন—এসব প্রশ্নের উত্তর জানতে আমাদের প্রতিনিধি যোগাযোগ করেছে ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে।

ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ বলছে, বুশরা আফরিনকে নিয়োগ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অ্যাড্রিয়েন আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশন রেসিলিয়েন্স সেন্টার (আরশট-রক) এবং তিনি ফাউন্ডেশনের হয়েই কাজ করবেন। তবে ফাউন্ডেশনের ওয়েবসাইটের তথ্য বলছে, কোনো নগরের তাপপ্রবাহের প্রভাব মোকাবিলায় মেয়র বা নেতৃত্বস্থানীয় অন্যরা চিফ হিট অফিসার পদ তৈরি করে এ পদে নিয়োগ দিতে পারেন।

ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সেলিম রেজা বলেন, ‘বুশরাকে নিয়োগ দিয়েছে আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশন। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন তাকে নিয়োগ দেয়নি। সিটি করপোরেশন থেকে তাকে কোনো সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার বিষয় নেই। তিনি এখানে বসবেনও না, এখান থেকে বেতন বা গাড়ি নেবেন না।’

আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের সঙ্গে ডিএনসিসির চুক্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বব্যাংক, ইউএনডিপি, ইউনিসেফসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যেমন কাজ করি, তেমনি আরশট-রকফেলারের সঙ্গে ঢাকার তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের ইস্যুতে কাজ করার একটি চুক্তি হয়েছে। এটা একটা নতুন ইস্যু। গতকাল এটা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা একটা সেমিনার করেছি। সেখানে বেশ কিছু পেপার উপস্থাপন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপকরা সেখানে যুক্ত হয়েছেন। এটা বাংলাদেশের জন্য একটি নতুন কাজের ক্ষেত্র।’

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা আরও বলেন, ‘এতটুকু বলতে পারি, বুশরা আফরিন আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের একজন কর্মকর্তা। সিটি করপোরেশনের সঙ্গে কাজ করার ক্ষেত্রে তিনি ফাউন্ডেশনের টিমের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কাজ করবেন, যেমন অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার হয়ে বাংলাদেশি নাগরিকরা কাজ করে থাকেন। পুরো এশিয়ার মধ্যে বুশরাকেই প্রথম হিট অফিসার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ফাউন্ডেশনটি।’

‘আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশন গ্লোবাল ওয়ার্মিং নিয়ে কাজ করে, তাপমাত্রা বৃদ্ধি, পরিবেশ নিয়ে কাজ করে থাকে। তারা হিট ইস্যুতে কাজ করে, আমরাও এই ইস্যুতে কাজ করতে চাই, গাছ লাগাতে চাই, পার্ক-খেলার মাঠ নিয়ে কাজ করতে চাই। এই কাজ করতে গিয়ে ফাউন্ডেশনটি চিফ অফিসার খুঁজছিল। বুশরা তার যোগ্যতাবলেই এ নিয়োগ পেয়েছে। আমাদের কথায় তো আর ইন্টারন্যাশনাল কোনো প্রতিষ্ঠান কাউকে চাকরি দিয়ে দেবে না। এখানে আমাদের উত্তর সিটি করপোরেশনের কোনো ভূমিকা নেই। কাকতালীয়ভাবে তিনি আমাদের মেয়রের মেয়ে’, বলেন সেলিম রেজা।

বুশরার নিয়োগ প্রক্রিয়া ও সুবিধা প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘বুশরা কতদিনের জন্য নিয়োগ পেয়েছেন, তার বেতন কত নির্ধারণ করা হয়েছে, তা আমরা জানি না। তিনি সেখান থেকে কী সুবিধা পাবেন, কিছুই বলতে পারব না। এই ফাউন্ডেশনের সঙ্গে বাংলাদেশের আর কেউ সংশ্লিষ্ট আছেন কি না, তাও জানা নাই।’

চিফ হিট অফিসার হিসেবে বুশরা শুধু উত্তর সিটিতে কাজ করবেন কি না, জানতে চাইলে সেলিম রেজা বলেন, ‘যেহেতু উত্তর সিটি করপোরেশন প্রথম এই ইস্যুতে কাজ শুরু করতে যাচ্ছে, তাই রকফেলার ফাউন্ডেশন বলেছে যে তিনি প্রথমে উত্তর সিটিতেই কাজ করবেন। তারা যখন দক্ষিণ সিটি, নারায়ণগঞ্জ বা অন্য কোনো সিটিতে বা সারা বাংলাদেশব্যাপী কাজ করবে, তখন তিনি সারা বাংলাদেশব্যাপী কাজ করবেন। তারা যদি এই ইস্যুতে ভারত, শ্রীলঙ্কা, নেপাল বা চীনে কাজ করে, তাহলে বুশরা সেসব দেশেও কাজ করবেন।’

এ বিষয়ে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘বুশরাকে চিফ হিট অফিসার হিসেবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নিয়োগ দেয়নি। চিফ হিট অফিসারের কোনো পদ উত্তর সিটি করপোরেশনে নেই, আমাদের অর্গানোগ্রামেও নেই। বুশরা আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের নিয়োগপ্রাপ্ত।’

‘বুশরার ইন্টারভিউ নেওয়া থেকে শুরু করে নিয়োগ পর্যন্ত সবই ওই ফাউন্ডেশন করেছে। আরশট-রক ফাউন্ডেশন নারী ছাড়া কাউকে নিয়োগ দেয় না। বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে চিফ হিট অফিসার নিয়োগ পাওয়া আগের ৬ জনও নারী। বুশরা সিটি করপোরেশন থেকে কোনো সুবিধা পাবেন না। তিনি আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের হয়ে আমাদের সঙ্গে নলেজ শেয়ার করবেন। বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলে কীভাবে হিট নিয়ন্ত্রণ করা হয়, তিনি সেসব বিষয়ে আমাদের পরামর্শ দেবেন,’ বলেন তিনি।

আগামী সপ্তাহ থেকে বুশরা চিফ হিট অফিসার হিসেবে কাজ শুরু করবেন বলেও জানান মেয়র।

চিফ হিট অফিসার হিসেবে নিয়োগের পর বুশরা আফরিন বলেন, ‘তীব্র তাপপ্রবাহের মতো অদৃশ্য ঝুঁকির বিষয়ে মানুষকে জানতে হয়। বিশ্বের অনেক দেশ মানুষকে এ বিষয়ে আগে থেকেই সাবধান করে। তাপপ্রবাহের মধ্যে বাইরে গেলে কী করতে হবে সে পরামর্শ দেওয়া হয়।’

চিফ হিট অফিসার হিসেবে বুশরা শুরুতে এই পরামর্শ দেওয়ার কাজটি করতে চান বলে জানান।

তিনি আরও বলেন, ‘তীব্র তাপপ্রবাহ সমস্যা সমাধানে অনেক ধরনের সমাধান রয়েছে। সেগুলো আমাদের খুঁজে বের করে স্থানীয় বিষয়গুলোকে সামনে রেখে প্রয়োগ করব।’

চিফ হিট অফিসার নিয়োগের বিষয়ে আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, কোনো দেশের সরকার তাপ নিয়ন্ত্রণের কাজকে অগ্রাধিকার দিলে স্থানীয় কর্মকর্তারা চিফ হিট অফিসার নিয়োগ দেবেন। কোনো নগরের তাপপ্রবাহের প্রভাব মোকাবিলায় মেয়র বা নেতৃত্বস্থানীয় অন্যরা চিফ হিট অফিসার পদ তৈরি করে এ পদে নিয়োগ দিতে পারেন।

এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ডিএনসিসির সিইও সেলিম রেজা রেজা বলেন, ‘স্থানীয় কর্মকর্তা বলতে আরশট-রকফেলার ফাউন্ডেশনের স্থানীয় কর্মকর্তাদের বোঝানো হয়েছে। সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা না। আমি তো সিইও। আমরা নিয়োগ দেইনি। আমাদের অর্গানোগ্রামেই এমন কোনো পদ নেই। আমরা কীভাবে নিয়োগ দেবো?’

সৌজন্যে: দ্যা ডেইলি বাংলা স্টার

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com