কমলগঞ্জে নেই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, বেতনবঞ্চিত কর্মীরা

শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০ | ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ | 322

কমলগঞ্জে নেই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, বেতনবঞ্চিত কর্মীরা

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার পদ শূন্য থাকায় একমাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না হাসপাতালের ১০৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী। বেতন না হওয়ায় হতাশায় ভুগছেন বিভিন্ন বিভাগের মাঠ পর্যায় থেকে শুরু করে অফিস স্টাফরা। কবে বেতন পাবেন তাও কেউ ঠিক করে বলতে পারছেন না।

গতবছরের ১৮ ডিসেস্বর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ইয়াহহিয়া পদোন্নতিজনিত বদলী হওয়ায় পদটি গত ১ মাস ৪ দিন ধরে শূন্য রয়েছে। ফলে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বেতন না পেয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে দিনযাপন করতে হিমশিম খাচ্ছেন।



কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ৫০ শয্যাবিশিষ্ট কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ইয়াহিয়া ২০১৯ সালের ১৮ ডিসেম্বর পদোন্নতিজনি বদলী হবার পর এখনও নতুন কোনো কর্মকর্তা যোগদান না করায় প্রশাসনিক জটিলতায় আটকে আছে সকল কার্যক্রম। মেডিকেল অফিসার ডা. সাজেদুল কবিরকে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার দায়িত্ব দিলেও আর্থিক ক্ষমতা প্রদান করা হয়নি। ভারপ্রাপ্ত হিসেবে তার স্বাক্ষরে অফিসিয়াল অন্যান্য কাজ হলেও বেতন উত্তোলনের ক্ষেত্রে কাজ হচ্ছে না। বেতন উত্তোলন করতে হলে ঢাকার প্রধান কার্যালয় থেকে অনুমোদন করে আনতে হয়। সেটাও করা যাচ্ছে না। আবার নতুন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে কাউকে নিয়োগও দেয়া হচ্ছে না। এতে করে স্বাস্থ্য বিভাগের মাঠ পর্যায়, অফিস স্টাফসহ প্রায় ১০৮ জনের বেতন গত ডিসেম্বর মাস থেকে বন্ধ রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হিসাবরক্ষক (ক্যাশিয়ার) সমরজিত সিংহ জানান, অফিসের স্টাফসহ তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতিমাসের ৩০ তারিখ বেতন উত্তোলন করা হয়। কিন্তু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বদলী হওয়ায় গত ডিসেম্বর মাসের বেতন-বিলে স্বাক্ষর হয়নি। পাশাপাশি চলতি জানুয়ারি মাসের বেতন তৈরি করা হয়েছে, তবে এখন পর্যন্ত কেউ যোগদান না করায় জানুয়ারি মাসের বেতন-বিলে স্বাক্ষর না হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মী ক্ষোভের সাথে বলেন, সরকারি গুরুত্বপূর্ণ একটি খাত স্বাস্থ্য। সেখানে একমাসের অধিক সময় ধরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার পদ খালি থাকায় আমাদের বেতন বন্ধ রয়েছে। আমরা অনেক কষ্টে দিনযাপন করছি। অনেকেই টাকা ধার করে সংসার চালাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবাসিক মেডিকেল অফিসার এবং ভারপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদুল কবির বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র উর্ধতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। আশা করি শিগগির এ সমস্যার সমাধান হবে।’

মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাজান কবির চেীধুরী বলেন, ‘কমলগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার পদ শূন্য থাকার বিষয়টি ঢাকায় চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে। আশা করি দ্রুত সমাধান হবে।’

ডেস্ক নিউজ

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com