আপডেট

x


উদ্বোধনের আগেই হেলে পড়ছে সড়কের গার্ডওয়াল!

মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০ | ১০:১৭ অপরাহ্ণ | 316

উদ্বোধনের আগেই হেলে পড়ছে সড়কের গার্ডওয়াল!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: উদ্বোধনের আগেই হেলে পড়েছে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কালনী নদীর উপর নবনির্মিত ব্রিজের অ্যাপ্রোচ সড়কের গার্ডওয়াল। যেকোনো সময় এটি ধসে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কিছুটা মেরামত করা হলেও কাজ বাকি রয়েছে বলে জানান এক সহকারী প্রকৌশলী।

এতে অ্যপ্রোচ সড়ক নির্মাণে ব্যয় করা সরকারের ৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা জলে যাবে বলে ধারণা করছেন দিরাই পৌর এলাকার লোকজন। অ্যাপ্রোচ সড়ক অকেজো হয়ে পড়ায় ঝুঁকি থাকায় ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কালনী ব্রিজ ব্যবহার নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। কালনী নদীতে দুইভাগে বিভক্ত দিরাই উপজেলাকে একত্রীকরণের স্বপ্নের যোগাযোগও হুমকিতে পড়েছে। ব্রিজের পশ্চিম পাড়ের অ্যাপ্রোচ সড়কের একপাশের দুইদিকে গার্ডওয়াল হেলে পড়েছে। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও কাজে অনিয়ম-দুর্নীতির কারণেই এমনটি হয়েছে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।



উপজেলা সদরের প্রধান সড়ক ব্যবহার করে ব্রিজ ও অ্যাপ্রোচ সড়ক নির্মাণ করা হয়। হেলে পড়ায় অ্যাপ্রোচ সড়কের উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ যেন শহরের প্রাণ কেন্দ্রে বিশাল ধ্বংসস্তুপ। এই উন্নয়ন কাজ এখন শহরের বিষফোঁড়া হয়ে দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার পূর্বাঞ্চলের সঙ্গে উপজেলা সদরের সড়ক যোগাযোগ স্থাপনের জন্য ২০১৩ সালে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে ২১০ মিটার দৈঘ্যর কালনী ব্রিজ নির্মাণ কাজ শুরু হয়। নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পর ৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ব্রিজের উভয়পাশে গার্ডওয়াল দিয়ে তিনশ ৭৫ মিটার সংযোগ সড়ক নির্মাণের জন্য ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে দরপত্র আহ্বান করা হয়।

কাজ পায় মেসার্স নূরুল ইসলাম নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। শুরুতেই কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়। সংযোগ সড়কের উপজেলা সদর পাড়ে অংশ আকারে একদিকে ১৩৩ ও অন্যদিকে ১০০ মিটার সংযোগ সড়কের উভয় পাশে গার্ড ওয়াল নির্মাণ করে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি ভরাট করে এইচবিবি (ইটসলিং) করা হয়। এই পাড়ের উপজেলা রোডমুখী সংযোগ সড়কের পূর্বদিকের গাইডওয়ালটি প্রায় দেড় ফুট হেলে গিয়ে ধনুক আকার ধারণ করেছে। বাজারমুখী সংযোগ সড়কের পশ্চিম দিকও অনেকটা হেলে গেছে।

সংযোগ সড়কটি হেলে পড়ায় এলাকাবাসীর আলোচনা-সমালোচনার মুখে, উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় ঠিকাদারের মাধ্যমে সংযোগ সড়কের মাটি খুঁড়ে রড দ্বারা একপাশের গার্ডওয়ালের সঙ্গে অন্যপাশের গার্ডওয়াল টানা দিয়ে ওয়ালটি রক্ষার ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে এতে কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। ব্রিজের অপর পাড়ে ৬০ মিটার গার্ডওয়াল নির্মাণ করা হলেও সেখানে নাম মাত্র মাটি ভরাট করা হয়েছে।

এদিকে, ২০১৯ সালের শেষের দিকে কাজ সম্পাদন হয়েছে জানিয়ে উপজেলা প্রকৌশলীকে পত্র দেয় নির্মাণ সংস্থাটি। উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কাজ সম্পাদনের পত্র প্রেরণ করা হলেও দাপ্তরিকভাবে তা গ্রহণ করা হয়নি।

ব্যবসায়ী ও যুবলীগ নেতা রায়হান চিশতী বলেন, সংযোগ সড়কের উভয়পাশে দোকান ঘরসহ বাসাবাড়ি রয়েছে। গার্ডওয়ালটি হেলে পড়ায় এখানকার বাসিন্দাসহ সবার মাঝে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। নির্মাণকাজে অনিয়ম দুর্নীতির খেসারত দিতে হচ্ছে শহরবাসীকে। অবিলম্বে যেন এই সংযোগ সড়ক নির্মাণ করে ব্রিজ উদ্বোধন করা হয় সেই দাবি জানাই।

দিরাই প্রেসক্লাব সভাপতি হাবিবুর রহমান তালুকদার বলেন, কালনী নদী আমাদের উপজেলাকে দুইভাগে বিভক্ত করে রেখেছিলো। বিভক্ত উপজেলাবাসীর স্বপ্নের যোগাযোগ কালনী ব্রিজের গাইডওয়াল উদ্বোধনের আগেই হেলে পড়ায় আমরা হতাশ। এর ফলে শুধু কালনী ব্রিজ নয়, উপজেলার পূর্বাঞ্চলকে সড়ক যোগাযোগের আওতায় নিয়ে আসা দূরাশায় পরিণত হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশল কার্যালয়ের গাফিলতি এবং অনৈতিক সুবিধা গ্রহণের কারণেই এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

দিরাই উপজেলা এলজিইডির সহকারী প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান বলেন, ২০ মিটার টপ সাইডের ৬ ইঞ্চি হেলে গিয়েছিল এখন সেটি ঠিক করা হয়েছে। আরও কাজ করা বাকি রয়েছে জেলা থেকে ইঞ্জিনিয়াররা পরিদর্শন করে গেছেন তেমন কোনও সমস্যা হবে না।

এ ব্যাপারে দিরাই উপজেলা প্রকৌশলী ইফতেখার হোসেন বলেন, এ কাজের রিভাইস ডিজাইন চলছে। এ ব্যাপারে আরও ভাল বলতে পারবেন সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী।

সুনামগঞ্জ স্থানীয় সরকার বিভাগ (এলজিইডি’র) নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুব আলম বলেন, হ্যা এই ব্রিজের অ্যাপ্রোচের ব্যপারে জানি এটি গত বছরের কাজ। কাজ চলমান আছে। এটা নিউজ না করলে ভাল হয়। সামনে আমাদের মিটিং এ সব কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com