হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে করাঙ্গী নদীর বাধঁ ভেঙ্গে ৭/৮টি গ্রাম প্লাবিত

সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ৭:৩৯ অপরাহ্ণ | 150

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে করাঙ্গী নদীর বাধঁ ভেঙ্গে ৭/৮টি গ্রাম প্লাবিত

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার করাঙ্গী নদীর বাধঁ মেরামতের এক বছরের মধ্যেই ভেঙ্গে ৭/৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে পড়েছে।

এতে ঐ এলাকার রোপা আউশও রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা ঝুকি নিয়ে যাতায়াত করছে।শুক্রবার ও শনিবারের প্রবল বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের পানিতে শনিবার রাতের কোন সময় কৃষ্ণপুর গ্রাম এলাকায় এ বাধঁ ভেঙ্গে গ্রামে পানি প্রবেশ শুরু করে।

অপরদিকে করাঙ্গী নদীর উপর দেওছড়া ব্রীজটি ভেঙ্গে যাওয়ার কারণেও মানুষের চলাচল দুর্ভোগে পড়েছেন।উপজেলার সাটিয়াজুরী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামে করাঙ্গীর নদীর বাঁধটি ২০১৮ সালে প্রথম ভেঙ্গে গেলে উপজেলা প্রশাসনের বরাদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদ এ বাধঁটি মেরামত করে গ্রামবাসীকে রক্ষা করেন।

কিন্তু চলতি বছর অতিমাত্রায় বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের কারণে ঝুকিপুর্ণ অবস্থায় ছিল বাধঁটি। কিন্ত শুক্রবার ও শনিবারের বর্ষন এবং পাহাড়ী ঢলে বাধঁটি ভেঙ্গে যায়। ফলে রাত থেকেই নদীর পানি প্রবেশ শুরু করে গ্রামটিতে।

একে একে পান প্রবেশ করে ইউনিয়নের কুনাউডড়া, দারাগাঁও, কৃষ্ণপুর,কাজিরখিল, চান্দেরটিলা, সিরাজনগর, চিলামী, সাটিয়াজুরী সহ ৭/৮টি গ্রামে। বানের পানিতে তলিয়ে যায় এসব গ্রামের বোনা ও রোপা আউশ ফসল ও রাস্তাঘাট। পানিতে ডুবে গেছে এসব গ্রামের নানা ফসলাদি ও নিন্মচালের পুকুর।

এদিকে এসব গ্রামের জনসাধারণ চরম দূর্ভোগে পড়েন। শিক্ষার্থী জীবণের ঝুকি নিয়ে দারাগাঁও ইসমাইল মুন্সি উচ্চ বিদ্যালয়সহ পার্শ্ববর্তী প্রাইমারী স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থীরা স্কুলে আসা যাওয়া করতে পারছেনা। অনেকেই জীবণের ঝুকি নিয়ে স্কুলে যাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর জানান,  চলতি বছর অতিমাত্রায় বৃষ্টি এবং পাহাড়ী ঢলের কারণে বাধঁটি ভেঙ্গে গেছে।

তিনি আরো বলেন বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে জরুরী ভিত্তিতে দেখতে বলেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাধঁ মেরামতের বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার হচ্ছে বলে জানিয়েছে এবং  আপাতত বৃষ্টি না থাকায় পানি কমতেছে  জানিয়েছেন।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com