সিলেটে পর্যটকদের জন্য নির্মিত হবে ‘ল্যান্ডিং স্টেশন’: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

রবিবার, ০৯ জুন ২০১৯ | ১০:০৩ অপরাহ্ণ | 135

সিলেটে পর্যটকদের জন্য নির্মিত হবে ‘ল্যান্ডিং স্টেশন’: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

আগামী কয়েক বছরের ভেতরে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প একটি অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী।

তিনি বলেন- ‘বাংলাদেশ একটি পর্যটন সম্ভাবনাময় দেশ। এদেশের প্রকৃতি দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করে। তাই পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নেয়ার জন্য বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।’

রবিবার (৯ জুন) বিকেলে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার বদরদি দাইমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব বিষয় জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন- ‘বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের উদ্যোক্তারা বাংলাদেশে পর্যটন শিল্পের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে ব্যবসা করতে আগ্রহী হয়েছে। কক্সবাজারে পর্যটন খাতকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সেখানে ‘শেখ হাসিনা টাওয়ার’ নির্মাণ করা হবে। এছাড়া গত দেড়মাস আগে একটি বিদেশি কোম্পানীর সাথে আমার কথা হয়েছে। সেখানে তারা ২.২৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে একটি পর্যটন স্পট তৈরি করতে আগ্রহী। করবে। এখানে থাকবে সুইমিং পুল, রাইডিং, আইস্কি মাঠ, ৫শ’ রুম বিশিষ্ট একটি ফাইভস্টার হোটেল। এছাড়া ‘মাউন্ট এলিজাবেথ’র আদলে একটি হাসপাতালও নির্মাণ করবে তারা।

সিলেটরে পর্যটনের বিষয়ে তিনি বলেন- ‘সিলেট পর্যটকদের জন্য একটি ‘ল্যান্ডিং স্টেশন’ নির্মাণ করা হবে। যেখান থেকে দূর থেকে আসা পর্যটকরা বিভিন্ন বিষয় জানতে পারবেন। সিলেটের পর্যটন স্পটগুলোতে ঘুরে বেড়াতে তাদের অনেক সুবিধা হবে।’

মাহবুব আলী বলেন- ‘আমি মনে করেছিলাম সিলেটের জাফলংয়ে কিছুই নেই। কিন্তু আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি সেখানে একটি স্থাপনা আছে। তবে সেটিতে বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ পরিচালিত হয়। এছাড়া বাংলাদেশের ২য় বৃহত্তম বন রেমা-কালেঙ্গার উন্নয়ন কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। এখানে পর্যটকদের জন্য সব ধরণের আধুনিক সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে। নির্মাণ করা হবে একটি হাসপাতালও।

এর আগে এক সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী।

হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মুশফিক হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন হবিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ খান, হবিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু, সাবেক সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়া, হবিগঞ্জের স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, যুক্তরাজ্য লেবার পার্টির নেতা ও বদরদি দাইমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি ফয়ছল হোসেন চৌধুরী এমবিই, হবিগঞ্জ-বাহুবল সার্কেলের সিনিয়র পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন-হাসান  দাঈমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক জুনেদ হুসেন চৌধুরী।

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

Development by: webnewsdesign.com